সেরা ৫ টি অ্যান্ড্রয়েড ফটো এডিটিং অ্যাপস

সেরা ৫ টি অ্যান্ড্রয়েড ফটো এডিটিং অ্যাপস (ফ্রি) | মোবাইলে ছবি এডিটিং সফটওয়্যার

মোবাইলে ছবি এডিটিং, ছবি এডিটিং সফটওয়্যার ডাউন লোড

আসসালামুআলাইকুম প্রিয় পাঠক। আশাকরি সকলে ভালো আছেন।  আজকে আমরা কথা বলব এমন পাঁচটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস নিয়ে যে অ্যাপগুলো সাহায্যে আপনারা সহজেই ফটো এডিটিং করতে পারবেন।আর ফটো এডিট করার সবগুলো এফসি আপনারা ফ্রিতে গুগল প্লে স্টোর থেকে পেয়ে যাবেন। 

 আমরা সহজ অ্যাপস গুলোই নির্বাচন করেছি যাতে আপনারা সকলেই ফটো এডিট করতে পারেন।  চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক। 

১. Snapseed

Snapseed  আমার সবচেয়ে প্রিয় একটি ফটো এডিটিং সফটওয়্যার । আর Snapseed কেউ শোনেনি এরকম মানুষের সংখ্যা খুবই কম। বর্তমানে ফটো এডিটিং মার্কেটে মার্কেটে এই অ্যাপসটি বিশাল একটি জায়গা দখল করে আছে। Snapseed  কি মূলত টেক জায়ান্ট গুগলের একটি প্রোডাক্ট।  এই অ্যাপসটি প্রায় 100 মিলিয়নের বেশি ডাউন লোড হয়েছে।  এবং এর রেটিং হচ্ছে4.5/5 ।

 এর বিশেষ ফিচার হল : 

  • এই অ্যাপসটিতে প্রায় 29 টি টুল রয়েছে। প্রত্যেকটি বিশেষ বিশেষ কাজ সম্পূর্ণ করে।

অ্যাপস টি পেতে এখানে ক্লিক করুন। 

  1. PicsArt Photo Editor

এই অ্যাপসটি মূলত PicsArt Inc.  একটি প্রডাক্ট | ইএফটি গুগল প্লে স্টোরে ফটোগ্রাফি ক্যাটাগরিতে সবচেয়ে বেশি ডাউন লোড হওয়া অ্যাপস .  এখন পর্যন্ত প্রায় 500 মিলিয়নের বেশি ডাউন লোড হয়েছে । এছাড়াও এটি রেটিং হচ্ছে 4.2 /5। এটি শুধুমাত্র ফটো এডিটিং এর জন্য নয় বরং আপনি প্রায় all-round হিসাবে এটি ব্যবহার করতে পারবেন ।এটির বিরক্ত হচ্ছে গিয়ে এদের ট্রেন্ডিং ফটো ইফেক্ট গুলো পাওয়া যায়।  আপনি সহজেই স্মার্ট সিলেকশন টুল দিয়ে ফটোর ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করতে পারেন।  এছাড়াও ext3 রয়েছে প্রায় 200 টিরও উপরে পথ যার মাধ্যমে আপনি কাস্টম লিখা বসাতে পারেন। 

অ্যাপস টি পেতে এখানে ক্লিক করুন । 

  1. Photo Editor Pro

Photo Editor Pro অ্যাপস টি এ আই বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স এর জন্য সবচেয়ে বহুল ব্যবহৃত। Photo Editor Pro অ্যাপসটির বর্তমান রেটিং হচ্ছে 4.8 /5.  অ্যাপসটি মূলত  ইনশট এর একটি প্রোডাক্ট।  অ্যাপসটির বিশেষত্ব হচ্ছে গিয়ে এটি ছবির নিরাপত্তা বিষয়ে সজাগ সেজন্য তারা মোবাইলে প্রতিটি ক্ষেত্রেই স্ট্রেট করার পারমিশন নিয়ে থাকে।  এছাড়াও অ্যাপসটির বিশেষ ফিচার গুলো হল  এই অ্যাপস অনেক  ফিচার রয়েছে ।  বিশেষ করে ফটোর ব্যাকগ্রাউন্ড রিমুভ করার জন্য রয়েছে Ai Cut-out Tool. এছাড়াও ছবি ব্লার করার জন্য রয়েছে DSLR Blur Effect. যদিও ব্যক্তিগতভাবে আমার এই ফিচারটি ভালো লাগেনি ।

অ্যাপসটি ডাউন লোড করতে এখানে ক্লিক করুন ।

  1. Adobe Lightroom

মোবাইল এর মাধ্যমে ছবি এডিট করার জন্য এডোবি সবচেয়ে জনপ্রিয় মোবাইল ফটো এডিটর হচ্ছে গিয়ে Adobe Lightroom. এডোবি সফটওয়্যার সম্পর্কে তেমন কিছু আর বলার নেই ।  এই অ্যাপস এর মাধ্যমে বেসিক লেভেল এর ছবি এডিট করার পাশাপাশি আপনি অ্যাডভান্স লেভেলের ছবি এডিট করতে পারবেন  এক কথায় অসাধারন একটি সফটওয়্যার।  এখন পর্যন্ত এটি প্রায় 100 বিলিয়ন এর অধিক ডাউন লোড হয়েছে।  এবং এটি রেটিং হচ্ছে  4.3 /5.

এই অ্যাপসটি একটি বিশেষ সুবিধা হচ্ছে আপনি চাইলে আপনার ফটকে ক্লাউড স্টোরেজ সেভ করা ছাড়াও এডভান্স শেয়ারিং সুবিধা পাবেন

 

  1. Canva

ইউজার ফ্রেন্ডলি দিকের কথা বিবেচনা করে এবং মার্কেটিং বা ইন্টারনেট ওসব ব্যক্তিবর্গদের যাদের নিয়মিতই জুতোর ছবি এডিট করার প্রয়োজন পড়ে তাদের জন্য একটি প্রফেশনাল ফটো এডিটিং সফটওয়্যার হলো এই ক্যানভা । প্রচলিত ফটো এডিটিং সফটওয়্যার তুলনায় ক্যানভাসে আপনি তুলনামূলক সুবিধা বেশি পাবেন।  বিশেষ করে গ্রাফিক্স সেক্টরের জন্য একটি অসাধারণ।  আপনি এই অ্যাপসের মাধ্যমে ফেসবুক পেজ হতে শুরু করে ব্যানার ,  ফ্লায়ার, কাভার ফটো, বিজনেস কার্ড  ইত্যাদি এবং তৈরি করতে পারবেন।  এ পর্যন্ত অ্যাপসটি 100 মিলিয়ন ডাউন লোড হয়েছে ।  এবং এর বর্তমান রেটিং হচ্ছে 4.7 /5.  

অ্যাপসটি ডাউন লোড করতে এখানে ক্লিক  করুন।

বোনাস : 

YourCam Perfect

ইনস্ট্যান্ট  ফিল্টার সহ ছবি উঠানোর জন্য এই অ্যাপস টি অসাধারণ।  মূলত যারা পছন্দ করেনা।  তাদের জন্য অ্যাপসটি খুব কার্যকরী । অ্যাপস টি এ পর্যন্ত 300 মিলিয়নার অধিকবার ডাউন লোড হয়েছে । এবং এ পর্যন্ত এটি রেটিং পেয়েছে 4.5 /5. 

 আজ এ পর্যন্তই।  পরবর্তীতে আপনার কোন টপ ফাইভ বিষয় সম্পর্কে জানতে চান আমাদের কমেন্ট করে অথবা মেইল করে জানাতে পারেন ।  আমরা সেই বিষয়গুলো নিয়ে হাজির হব। সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন আসসালামু আলাইকুম। 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *